বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন

ঢাকায় ওয়াটারএইডের অন্তর্ভুক্তিমূলক ওয়াশ প্রকল্প পরিদর্শন করল সুইডিশ স্টেট সেক্রেটারি

ডেইলী বেঙ্গল গেজেট রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২৩ ৫:১৯ pm

সুইডেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগিতা ও বৈদেশিক বাণিজ্যবিষয়ক বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মিস ডিয়ানা জানসে এবং রাষ্ট্রদূত মিসেস আলেকজান্দ্রা বার্গ ভন লিন্ডে গত ৯ অক্টোবর ২০২৩ তারিখে সুইডেন সহায়তাপুষ্ট ওয়াটারএইড বাংলাদেশের প্রকল্পগুলো পরিদর্শন করেছেন। পানি, স্যানিটেশন এবং স্বাস্থ্যবিধির সর্বজনীন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের উদ্দেশ্যে পরিচালিত এ উদ্যোগগুলো অন্তর্ভুক্তিতা, লিঙ্গ রূপান্তর এবং অধিক স্থায়িত্বশীলতা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে ইতোমধ্যেই যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছে।

এ সময় মিস ডিয়ানা জানসে ঢাকার মহাখালী মডেল হাই স্কুল পরিদর্শন করেন, যেখানে ওয়াটারএইড ও তার সহযোগি সংস্থা সকলের জন্য নিরাপদ পানির, লিঙ্গ-নিরেপক্ষ এবং প্রতিবন্ধী-বান্ধব টয়লেট (স্কুল-ওয়াশ) ব্যবস্থাসহ শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কিত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেছে। এই স্কুলের বেশিরভাগ শিক্ষার্থী আশেপাশের বস্তি থেকে আসে। তাই শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে তাদের নিজ নিজ পরিবার এবং কমিউনিটি কাছে স্বাস্থ্যবিধির ধারণা ছড়িয়ে দিতে এ সম্পর্কিত কার্যক্রম ডিজাইন করা হয়েছিল।

এ সফরের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিল ওয়াশ কার্যক্রমের স্থায়িত্বশীলতা সম্পর্কে ধারণা অর্জন। মিস ডিয়ানা জানসের স্কুল পরিদর্শন সময় শিক্ষার্থীরা স্যানিটেশন সুবিধা পাওয়ার আগের এবং পরের পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করে যার মধ্যে ছিল উল্লেখযোগ্য হলো মেয়েদের স্কুলে উপস্থিতির হার বৃদ্ধি। উল্লেখ্য, দুই বছর আগে মহাখালী মডেল হাইস্কুলে ওয়াশ অবকাঠামো নির্মাণের পর তা বিদ্যালয়টি নিজস্ব তত্বাবধানে পরিচালনার জন্য হস্তান্তর করা হয়।

পরে, এরশাদনগর বস্তিতে, কর্মকর্তারা দৃষ্টিশক্তি, শ্রবণশক্তি এবং শারীরিক প্রতিবন্ধকতাসহ বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন লোকদের একটি সম্প্রদায়ের জন্য নির্মিত একটি ‘অন্তর্ভুক্তিমূলক ওয়াশ ব্লক’ পরিদর্শন করেন। স্থানীয় কমিউনিটি ওয়াশ ব্লকটির সার্বিক পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণে জড়িত, যারা ইতিপূর্বে সুইডেন সরকারের সহায়তাপুষ্ট ওয়াশ-ফর-আরবান-পুওর নামক ফ্ল্যাগশিপ প্রকল্পের অধীনে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় জ্ঞান, দক্ষতা এবং উপকরণ সহায়তার মাধ্যমে সক্ষমতা অর্জন করেছে। রোগের প্রাদুর্ভাব এবং অর্থনৈতিক বোঝা হ্রাস করতে এই সুবিধাটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছে। এছাড়াও, ওয়াশ-ফর-আরবান-পুওর প্রকল্পের কার্যক্রম ব্যক্তিগত মর্যাদা, সুরক্ষা এবং সামাজিক অন্তর্ভুক্তি বৃদ্ধিসহ একটি ন্যায়সঙ্গত সমাজ গঠনের জন্য একটি মডেল হিসেবে কাজ করেছে।

কৌশলগত অংশীদারিত্ব এবং বিনিয়োগের মাধ্যমে, সুইডেন সরকার এবং ওয়াটারএইড সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ এবং উদ্বাস্তু জনগোষ্ঠির জন্য নিরাপদ পানি এবং উন্নত স্যানিটেশনের সুযোগ সৃষ্টি করে একটি উজ্জ্বল আগামী নির্মাণের জন্য কাজ করছে। এই কার্যক্রমের প্রভাব শুধু উন্নত ওয়াশ পরিষেবাই নয়, স্বাস্থ্যকর জীবন, স্থিতিশীল সম্প্রদায়, শক্তিশালী শাসন কাঠামো এবং অধিক টেকসই আগামী নির্মাণে সক্ষম।

এ সফরের সময় ওয়াটারএইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর হাসিন জাহান বলেন, ‘যদিও সুইডেন এবং ওয়াটারএইড কার্যকর ওয়াশ পরিষেবা প্রদান করলেও, আমাদের এসডিজি ৬ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের দিকে গুরুত্ব দিতে হবে। এটি করার জন্য, সকলের জন্য সবসময় নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন এবং স্বাস্থ্যবিধি পরিষেবার সুযোগ সৃষ্টি করতে হবে। এটি একটি বৃহত্তর মিশন, এবং আমরা বিশ্বাস করি যে, সুইডেনের সাথে আমাদের অংশীদারিত্ব আমাদের লিঙ্গ রূপান্তরমূলক এ্যাপ্রোচ নিশ্চিত করতে সাহায্য করবে, ক্রসকাটিং সেক্টরগুলিতে জীববৈচিত্র্য এবং পরিবেশগত স্যানিটেশন উন্নত করতে সাহায্য করবে এবং অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল প্রতিরোধের মতো উদীয়মান সমস্যার সমাধান ত্বরান্বিত করতে আমাদের সক্ষম করব’।

টেকসই পনি, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, পুনর্ব্যবহারযোগ্য এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় নেতৃত্বদানকারী হিসাবে সুইডেনের দক্ষতা ওয়াটারএইড বাংলাদেশের ভবিষ্যত লক্ষ্যগুলির সাথে অতপ্রোতভাবে সম্পর্কযুক্ত এবং টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ৬ অর্জনে একটি উল্লেখযোগ্য দিক। ওয়াটারএইড-এর লক্ষ্য হল সহযোগিতা বাড়ানো যা প্রাসঙ্গিক বেসরকারি খাতগুলিকে পরবর্তী দশকগুলোতে সুইডেনের সাথে বাণিজ্য কার্যক্রমে জড়িত হতে উৎসাহিত করবে।

সুইডেন সরকারের সমর্থনপুষ্ট ওয়াশ-ফর-আরবান-পুউর প্রকল্পের দ্বিতীয় পর্যায়ের লক্ষ্য পরিবেশগত স্বাস্থ্য এবং স্থিতিশীলতা বৃদ্ধি। তিন বছর মেয়াদী এই প্রকল্পটি ৯.৭ মিলিয়ন মানুষের কাছে পৌঁছানোর লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে নাগরিকদের, বিশেষ করে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, পাইকগাছা, সখীপুর এবং সৈয়দপুরে বিস্তৃত বিভিন্ন শহুরে অঞ্চলের নিম্ন-আয়ের জনগোষ্ঠীর জন্য ওয়াশ সুযোগের উপর উল্লেখযোগ্য ইতিবাচক প্রভাব নিশ্চিত করতে কাজ করছে।

আরো

© All rights reserved © 2023-2024 dailybengalgazette

Developer Design Host BD