রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৫:১৩ পূর্বাহ্ন

দারাজে ১১.১১ উৎসবে আমেজে মেতেছেন দেশের ২৯ লক্ষাধিক ক্রেতা

ডেইলী বেঙ্গল গেজেট রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২৩ ২:১৫ pm

দারাজ ১১.১১ ক্যাম্পেইনের ১১ নভেম্বর ২৯ লক্ষাধিক ক্রেতার দেখা মিলে যা বিক্রেতাদের জন্য অসাধারণ সুযোগ সৃষ্টি করে। এরই পাশাপাশি ক্রেতারা পেয়েছেন সবচেয়ে সুলভ মূল্যে মানসম্পন্ন পণ্য কেনার সুযোগ

দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স মার্কেটপ্লেস দারাজ ইতিমধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে বছরের সবচেয়ে বড় সেল দারাজ ১১.১১ শুরু করেছে। বিক্রেতা এবং ক্রেতা উভয়ের জীবনমান উন্নত করায় অসাধারণ ভূমিকা পালন করে বছরের সেরা এই বিক্রয়োৎসব। মাত্র ২৪ ঘণ্টায় দারাজের মাধ্যমে ২৯ লক্ষাধিক ক্রেতা যুক্ত হতে পেরেছে ৫৩,০০০ এর বেশী ব্র্যান্ড এবং ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের সাথে। এটি ডিজিটাল অর্থনীতির ক্রমাগত অগ্রগতির দিকনির্দেশনা দেয়। এরই পাশাপাশি দক্ষিণ এশিয়ার সর্বাধিক মানুষের কাছে ই-কমার্সের সুবিধাগুলি পৌঁছে দেয়া সুনিশ্চিত করে।

বর্তমান বিশ্বে অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ-এর সাথে সাথে বেড়ে চলেছে জীবনযাত্রার খরচ। এমতাবস্থায়, দারাজ ১১.১১ একটি মূল্যবান সুযোগ যেখানে ক্রেতারা পেয়ে যাচ্ছেন উন্নতমানের ফ্যাশন, বিউটি, হোম ও ডেকোর এবং আরো অনেক আইটেম। সারা বছরের অপেক্ষার পর পছন্দের জিনিসগুলো কেনার সুযোগ পাওয়া যাচ্ছে সবচেয়ে কম দামে, সাথে ৬৩% ক্রেতারা উপভোগ করেছেন ফ্রি ডেলিভারি এর সুবিধা।

গত এক বছরে দারাজ নতুন নতুন প্রযুক্তিতে বিশেষভাবে বিনিয়োগ করেছে। এসকল প্রযুক্তি বিক্রেতাদের সাহায্য করে দারাজে তাদের অনলাইন বিক্রয়ে গতি বৃদ্ধি করতে । ১৪,০০০ এর বেশি ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তা (এস এম ই) দারাজের ১১.১১ ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে পণ্য বিক্রি করেছেন প্রথম ২৪ ঘন্টায়। চমৎকার এই সাফল্যকে সামনে রেখে দারাজ বিক্রেতাদের ক্রমাগত আয় বৃদ্ধিতে অবদান রাখতে পারবে বলে আশাবাদী।

দারাজ গ্রুপের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার বিয়ারকে মিকেলসেন এই মাইলফলক সম্পর্কে বলেন, “এই চ্যালেঞ্জিং সময়ে আমরা ক্রেতাদের কাছে সম্ভাব্য সর্বোত্তম মূল্য অফার নিশ্চিত করতে চেয়েছি। এটি আমাদের বিক্রেতাগণ ও পার্টনারদের ছাড়া সম্ভব ছিল না। এছাড়াও দারাজে আরও অনেক নতুন বিক্রেতা যোগ দিচ্ছেন। দারাজকে ভরসা করার জন্য আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। এবারের ১১.১১-এ ক্রেতাদের অভিভূত সাড়া পেয়ে আমরা অত্যন্ত উৎসাহিত। আশা করি আমরা সারা বছর ক্রেতাদের জন্য সেরা পণ্য, সেরা মূল্য এবং সেরা মান নিশ্চিত করার আমাদের প্রতিশ্রুতিকে বজায় রাখতে সক্ষম হব।”

ফ্যাশনের জনপ্রিয়তা বজায় রেখে প্রথম ২৪ ঘন্টায় ২,৬০,০০০-এর ও বেশী ফ্যাশন পোশাক বিক্রি হয়েছে। এর মাঝে বাংলাদেশী নারীদের ঐতিহ্যবাহী পোশাকের সংখ্যাই বেশী।

দারাজ ১১.১১ সেলে ১,৫০,০০০- এরও বেশী মোবাইল ফোন, কম্পিউটার এবং ল্যাপ্টপ বিক্রয় হয়েছে যা দেশের লক্ষাধিক মানুষের প্রয়োজন পূরণ করেছে।

দৈনন্দিন জীবনযাত্রার সকল পণ্যের একমাত্র গন্তব্যস্থল হওয়ার প্রতিশ্রুতিকে বজায় রেখে দারাজ ১,৭৫,০০০-এর বেশী গ্রোসারি আইটেম বিক্রি করেছে। এর মাঝে চাল ও তেলের মত মৌলিক পণ্য বিক্রি হয়েছে সবচেয়ে বেশী।

ক্রেতাদের কাছে সর্বোত্তম মূল্যে মানসম্পন্ন পণ্যগুলো পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে দারাজ এনেছে আকর্ষণীয় ডিলসমূহ। এর মাধ্যমে ক্রেতারা কেনাকাটা করার সময় অনেক বেশি সাশ্রয় করতে পারেবেন।
অবিশ্বাস্য ছাড়ঃ গ্রাহকরা ৫০ কোটি টাকা মূল্যমানের ছাড় সহ অতুলনীয় কেনাকাটার অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে পারবেন।
অশেষ ডিলসমুহঃ ২০ লক্ষ ডিলের সাথে এ বছরের ১১.১১ আগের চেয়ে বড় যেখানে রয়েছে সুলভ মূল্যে পণ্য কেনার সুযোগ।
ফ্রি ডেলিভারিঃ অবস্থান নির্বিশেষে, দারাজ এই মেগা উৎসব উদযাপনের জন্য নির্বাচিত পণ্যসমূহে বিনামূল্যে ডেলিভারি অফার করছে।

ক্যাশব্যাক অফার:

দারাজ ১৫% পর্যন্ত সঞ্চয় নিশ্চিত করছে অসংখ্য পেমেন্ট পার্টনারদের সাহায্যে যাদের মাঝে আছে বিকাশ, নগদ, ব্যাংক এশিয়া, ব্র্যাক ব্যাংক, সিটি ব্যাংক লিমিটেড, দারাজ-ইবিএল কো-ব্র্যান্ড কার্ড এবং আরও অনেকে।

১১.১১-এ আকর্ষণীয় ডিলগুলি ছাড়াও, ক্রেতারা সারা বছর প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে সেরা মানের পণ্য উপভোগ করতে পারে। দারাজে আছে প্রতিদিনের কম দামের ডিল থেকে শুরু করে আকর্ষণীয় ভাউচার এবং ফ্ল্যাশ সেল যা তার ব্যবহারকারীদের জন্য কেনাকাটাকে সাশ্রয়ী এবং সুবিধাজনক করে তোলে। এই ধরনের উদ্যোগগুলি ক্রেতাদের দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জিনিসগুলিতে সঞ্চয় করার সুযোগ করে দেয়ার পাশাপাশি অনলাইন কেনাকাটাকে শোভনীয় অভিজ্ঞতায় রূপান্তরিত করে। এর মাধ্যমে তাদের জীবনযাত্রার মান-ও হয় আরও উন্নত।

দারাজ বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ মোস্তাহিদল হক বলেন, “আমরা আমাদের পার্টনারসমূহ, ক্রেতাগণ এবং অবশ্যই আমাদের টিমের কাছে কৃতজ্ঞ তাদের প্রশংসনীয় সমর্থনের জন্য যা ১১.১১-কে বাস্তবায়ন করতে সাহায্য করেছে। মূল্যস্ফীতি বৃদ্ধির এ সময়ে, আমাদের এ বছরের লক্ষ্য ছিল ক্রেতাদের সঞ্চয় সর্বাধিক করতে সাহায্য করা এবং বিক্রেতা ও উদ্যোক্তাদের জন্য নতুন আয়ের সুযোগ তৈরি করা। আমরা চেয়েছি জীবনযাত্রার ক্রমবর্ধমান ব্যয় মোকাবেলা করায় তাদের সাহায্য করতে। আমরা সামনের দিনগুলিতে আমাদের ক্রেতাদের আরও বেশি সঞ্চয় এবং বৈচিত্র্যের মাধ্যমে সেরা কেনাকাটার অভিজ্ঞতা দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এরই সাথে আরও বেশি বিক্রেতাদের তাদের ব্যবসায়িক বিকাশে সহায়তা করতে প্রস্তুত।”
১১.১১, বছরের সবচেয়ে বড় সেল, চলছে ১১ থেকে ২২ নভেম্বর পর্যন্ত। এখুনি ঘুরে আসুন দারাজে এবং উপভোগ করুন অবিশ্বাস্য ডিল এবং অফার।

আরো

© All rights reserved © 2023-2024 dailybengalgazette

Developer Design Host BD