মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন

নির্বাচনকে হাসি-তামাশা, বাণিজ্য আর প্রহসনে পরিণত করা হয়েছে: রিজভী

ডেইলী বেঙ্গল গেজেট রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২৩ ৮:৪০ pm

নির্বাচনকে এখন হাসি-তামাশা, বাণিজ্য আর প্রহসনে পরিণত করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। দলটি বলেছে, ‘জনগণের কাছ থেকে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচনের ক্ষমতা ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। এখন জনপ্রতিনিধিত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দান-দক্ষিণা, খয়রাত, বিলি-বন্টন, ভাগ-বাটোয়ারা, উপহাস-করুণায় পরিণত হয়েছে। ২০১৪ বিনা ভোটে অটোপাস এবং ২০১৮ সালের নিশিরাতের ভোট ডাকাতির পর এবার ভাঁওতাবাজির নামে সিলেকশন করা হচ্ছে। অত্যন্ত নিখুঁত ধূর্ততায়, জনগণের চোখে ধুলো দিয়ে ৭ জানুয়ারি ভোটের নামে রাষ্ট্রের শত শত কোটি টাকার শ্রাদ্ধ করা হবে।’

শনিবার বিকালে ভার্চুয়াল এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘সরকারের জোটসঙ্গী একটি দলের শীর্ষ নেতা এই ‘পাতানো ভুয়া’ নির্বাচনে যেতে না চাওয়ায়, বিভিন্ন এজেন্সি দিয়ে সেই নেতাকে একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জিম্মি করা হয়। পরে নির্বাচনের ঘোষণা দিতে বাধ্য করা হয়েছে। ক্ষমতাসীনদের নির্দেশে নেতাদের বাড়ি বাড়ি হানা দিচ্ছে রাতের বাহিনী। এইভাবে জোড়াতালি দিয়ে নির্বাচনের পথে হাঁটছে মাফিয়াচক্র।’

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমানে দেশের অধিকাংশ জনগণের দিন কাটছে অভাবে-অর্ধাহারে-অনাহারে। এমনকি অনেক মধ্যবিত্ত পরিবারও সংসারের টানাপোড়েনে বিপর্যস্ত। সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছে অনেক পরিবার। প্রতিদিন বেড়েই চলেছে চাল-ডাল-আলু-তেল-পেঁয়াজ-রসুনসহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনসের দাম। দেশে উৎপাদনশীল এইসব পণ্যের সঙ্গে অন্য কোনো দেশের যুদ্ধের সম্পর্ক নেই। সরকারের মাফিয়া চক্রের কারণে এসব জিনিসপত্রের দাম নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে না।’

রিজভী বলেন, ‘সরকার একদিকে বলছে নির্বাচনে আসুন, অন্যদিকে বিএনপিসহ বিরোধী দলের সম্ভাব্য প্রার্থীসহ আন্দোলনে সক্রিয় ও সাহসী নেতাদের টার্গেট করে কারাদণ্ড দিচ্ছে। পুরনো মামলায় সাজা দেওয়ার হিড়িক শুরু হয়েছে। নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করতে দুই বছরের নিচে কারোর সাজা হচ্ছে না। এসব কারাদণ্ড প্রদান করা হচ্ছে ‘আজব আদালত’ থেকে। যেখানে মৃত ও গুম হওয়া নেতাদেরও রেহাই নেই। মৃতদেরও সাজা দিচ্ছে। গত দেড় মাসে বিএনপির ৫৮২ জন নেতাকর্মীকে প্রহসনের বিচারে দণ্ডিত ঘোষণা করা হয়েছে। রাত-দিন আদালত খুলে আওয়ামী দলদাসরাই সাক্ষী-তারাই বিচারক। ফরমায়েশি রায়ও দেওয়া হচ্ছে প্রহসনের নির্বাচনের মতো।’

আরো

© All rights reserved © 2023-2024 dailybengalgazette

Developer Design Host BD