শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৮:৪৪ অপরাহ্ন

বড় আমরুল

ডেইলী বেঙ্গল গেজেট রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৬ আগস্ট, ২০২৩ ২:৫২ am

অম্লিকা, আংববতী, আমরুক, আমরুল, আমরুল শাক, ক্ষুদ্রামম্লী, চতুশ্ছদা, চাঙ্গেরী, চুকত্রিপাতি, চুকা শাক, চুক্রা, চুত্রিকা, চৌপতিয়া, চ্যাংদোলা, টক পাতা, বড় আমরুল। এত বিচিত্র নাম দেখে সহজে অনুমান করা যায় যে আমরুল জিনিসটি মানুষের কাছে যেমন অতি আদরণীয় তেমনি সহজলভ্য। এর আদিনিবাস ভারতবর্ষ বা দক্ষিণ আমেরিকা উভয়টি ধরা হয়।

বৈদিক যুগে ও সুশ্রুত সংহিতায় আমরুল শাকের বিবরণ পাওয়া যায়। আদিবাসীদের সম্মিলিত অনুষ্ঠান যা বীজ বোনাকে কেন্দ্র করে হয় তা শুরু হয় বর্ষায়। গান ও নৃত্য সহকারে এই অনুষ্ঠানকে একত্রে বলা হয় চাঙ্গু। বিশেষ করে ছোট নাগরূপের আদিবাসীরা এটি করে থাকে। সমষ্টিগত কাজ অর্থে চাঙ্গু বোঝায়। আমরুল একটি পত্রবৃন্ত থেকে সূত্রাকারে গুচ্ছভাবে দণ্ডের মাথায় ত্রিধাবিভক্ত পাতায় বেড়ে ওঠে। প্রায় সময়ই এই সূত্রাকার লতার সংখ্যা থাকে চার। এই চার থেকে চাঙ্গরা তথা চাঙ্গেরী নামটি এসেছে বলে ধারণা করা হয়। আমরুল শাকে প্রচুর পরিমাণে অক্সালিক অ্যাসিড থাকে বিধায় এই শাক টকযুক্ত। গ্রামে শাক হিসেবে খাওয়ার পাশাপাশি এই শাকের অম্বলও (টক) খাওয়া হয়। গ্রামে শিশুকিশোররা হাঁড়িপাতিল খেলায় এই শাক ব্যবহার করে থাকে।

সারা বিশ্বে প্রায় দুইশ প্রজাতির আমরুল রয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশে ছোট আমরুল এবং গোলাপি বড় আমরুল দেখা যায়। তবে ছোট আমরুলই বেশি চোখে পড়ে। এই ছোট আমরুলের ফুলের রঙ হলুদ, অন্যদিকে বড় আমরুলের ফুলের রঙ গোলাপি। ফুলের ভেতরে পুংকেশর থাকে। আমরুলের পাতা দেখতে অনেকটা লাভ আকৃতির। অনেকে শখ করে টবে বড় আমরুল রোপণ করেন ফুলের জন্য। ফুল পাঁচ পাপড়ি বিশিষ্ট পরস্পর সংযুক্ত।

সাধারণত সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে বড় আমরুলে ফুল দেখা যায়। এটি যেখানে জন্মে সে অংশ প্রায় দখল করে নেওয়ার চেষ্টা করে। এর বৈজ্ঞানিক নাম Oxalis debilis. সর্দি, অম্লপিত্ত, আমাশয় ও ক্ষুধামন্দায় আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় এই শাক ব্যবহৃত হয়। আম বলতে আমাশয় এবং সংস্কৃত রুক বলতে রুখে দেওয়া অর্থে আমরুক তথা আমরুল নামটি হয়ে থাকতে পারে বলে অনেকে ধারণা করেন।

আরো

© All rights reserved © 2023-2024 dailybengalgazette

Developer Design Host BD