রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের টেক্সটাইল ও পোশাক শিল্পকে সার্কুলার অর্থনীতিতে রূপান্তরের জন্য স্টেকহোল্ডারদের সহযোগিতা, উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক মডেলের উপর গুরুত্ব প্রদান

ডেইলী বেঙ্গল গেজেট রিপোর্ট
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩ ৭:৫৭ pm

রোববার (৩ সেপ্টেম্বর) একটি প্যানেল আলোচনায় বক্তারা বাংলাদেশের পোশাক শিল্পকে সার্কুলার অর্থনীতিতে রূপান্তরের জন্য একটি সার্কুলার শিল্প ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে শিল্প স্টেকহোল্ডারদের সহযোগিতামূলক পন্থা, উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক মডেল, আর্থিক সহায়তা ব্যবস্থার প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছেন।

“সুইচ টু আপস্ট্রিম সার্কুলারিটি: প্রি-কনজুমার টেক্সটাইল ওয়েষ্ট ইন বাংলাদেশ” শীর্ষক সংলাপের অংশ হিসেবে আলোচনার আয়োজন করা হয়।
‘সুইচ টু সার্কুলার ইকোনমি ভ্যালু চেইনস প্রজেক্ট (SWITCH2CE) ’ এর অধীনে এ ইভেন্টের আয়োজন করা হয়। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে ইউরোপিয় ইউনিয়ন এবং ফিনল্যান্ড সরকারের অর্থায়নে ইউনিডো এর নেতৃত্বে চ্যাথাম হাউজ (CHATHAM House), সার্কল ইকোনমি (Circle ECONOMY), ইউরোপিয়ান ইনভেষ্টমেন্ট ব্যাংক (European Investment Bank) এবং গ্লোবাল ভ্যালু চেইনের সার্কুলারিটি সমর্থনকারীদের সহযোগিতায় প্রকল্পটির কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

“উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক মডেলের মাধ্যমে একটি সার্কুলার ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ইকোসিস্টেমকে সক্ষম করা (Enabling a circular industrial ecosystem by an innovative business model)” শীর্ষক প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন দিশান করুনারত্নে, বেষ্টসেলার এর বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের প্রধান প্রতিনিধি; ড. এম. মাসরুর রিয়াজ, সিইও, পলিসি এক্সচেঞ্জ; মোহাম্মদ জাহিদুল্লাহ; সিএসও, ডিবিএল গ্রুপ; শহিদউল্লাহ আজিম, সহ-সভাপতি, বিজিএমইএ এবং সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, এমটিবি, বিডির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা।

শাশা ডেনিমস এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বিজিএমইএ স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ফরেন মিশন সেল এর চেয়ারম্যান, শামস মাহমুদের সঞ্চালনায় প্যানেল আলোচনায় প্যানেলিস্টরা সার্কুলারিটি পরিস্থিতি এবং বাংলাদেশের পোশাক ও বস্ত্র শিল্পকে সফলভাবে ভ্যালু চেইনের মধ্যে সার্কুলারিটিতে রূপান্তরিতকরণের সম্ভাব্য সমাধানগুলো নিয়ে আলোচনা করেন।

এই সংলাপ ব্র্যান্ড, প্রস্তুতকারক, নীতিনির্ধারক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং পুনর্ব্যবহারকারী উদ্ভাবক সহ ফ্যাশন শিল্পের অংশীজনদের ব্যাপক পরিধিতে একত্রিত করেছে। সংলাপের লক্ষ্য ছিল বাংলাদেশের টেক্সটাইল ও পোশাক শিল্পে সার্কুলার অর্থনীতিতে রূপান্তরের চ্যালেঞ্জ ও সুযোগ নিয়ে আলোচনা করা।

আলোচনার মূল বিষয়গুলোর মধ্যে একটি ছিল, সার্কুলার অর্থনীতিতে রূপান্তরের ক্ষেত্রে উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক মডেলগুলোর ভূমিকা তুলে ধরা। অংশগ্রহনকারীরা আলোচনা করেছেন যে সার্কুলার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে কিভাবে উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক মডেলগুলো পোশাক প্রস্তুতকারক এবং ব্র্যান্ডদেরকে পণ্যসমূহ ডিজাইন করা, দীর্ঘ স্থায়িত্বসম্পন্ন পণ্যের প্রচার এবং বর্জ্য উৎপাদনকে হ্রাস করার ক্ষেত্রে উৎসাহিত করতে পারে।

আলোচনার আরেকটি প্রধান বিষয় ছিলো একটি সহায়ক নিয়ন্ত্রণ কাঠামোর প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরা। বক্তারা আলোচনা করেন, কিভাবে নীতিনির্ধারকরা একটি অনুকূল নিযন্ত্রক পরিবেশ তৈরি তরান্বিত করতে পারেন, যা সাসটেইনেবিলিটির প্রসার ঘটাতে পারে, স্থানীয় উদ্ভাবনকে উৎসাহিত এবং দেশের সার্কুলার পোশাক শিল্পের প্রতি আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদেরকে আকর্ষণ করতে পারে।

সংলাপে বিভিন্ন অংশীজনদের মধ্যে সহযোগিতার গুরত্বও তুলে ধরা হয়। অংশগ্রহনকারীরা আলোচনা করেছেন, কিভাবে সরকার, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, প্রস্তুতকারক এবং বিজিএমইএ এর মতো শিল্প সংগঠনগুলো সার্কুলার অনুশীলন গ্রহণকে ত্বরান্বিত করতে একসাথে কাজ করতে পারে।

বাংলাদেশের টেক্সটাইল ও পোশাক শিল্পের সার্কুলার অর্থনীতিতে রূপান্তরের জন্য সকল অংশীজনদের কাছ থেকে সমন্বিত প্রচেষ্টা আহবানের মধ্য দিয়ে প্যানেলটি সমাপ্ত হয়েছে ।

আরো

© All rights reserved © 2023-2024 dailybengalgazette

Developer Design Host BD